Home / জাতীয় / হাসিমুখে কথা বলাও ইবাদত

হাসিমুখে কথা বলাও ইবাদত

মানুষের আচরণে তাঁর ব্যক্তিত্বের ছাপ ফুটে ওঠে। স্পষ্ট হয় তাঁর শিক্ষা ও শিষ্টাচার, রুচি ও ব্যক্তিত্ববোধ, মন ও মানসিকতা। তাই ইসলামের শিক্ষা হলো, মানুষের সঙ্গে মার্জিত ভঙ্গিতে হাসিমুখে কথা বলা। তা ছাড়া পারস্পরিক দেখা-সাক্ষাতে হাসিমুখে কথা বলা সামাজিকতা ও মানবিকতার দাবি। হজরত আবদুল্লাহ ইবনে হারেস (রা.) বলেছেন, মুচকি হাসিতে রাসুলুল্লাহ (সা.)-এর চেয়ে অগ্রগামী কাউকে আমি দেখিনি। (শামায়েলে তিরমিজি, হাদিস : ২২৭) মানুষের সঙ্গে হাসিমুখে কথা বলার গুরুত্ব দিতে গিয়ে নবী (সা.) তাঁর এক প্রিয় সাহাবি আবু জার (রা.)-কে বলেছিলেন, ‘কোনো ভালো কাজকেই তুচ্ছ মনে করবে না, এমনকি তা যদি তোমার ভাইয়ের সঙ্গে হাসিমুখে সাক্ষাৎ করার বিষয়ও হয়। ’ (সহিহ মুসলিম, হাদিস : ২৬২৬)

About admin

Check Also

ওয়াজ মাহফিল পর্যবেক্ষণে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মনে করছে ওয়াজের নামে অনেকে সাম্প্রদায়িক, জঙ্গিবাদী, নারী বিদ্বেষ ও কটূক্তিমূলক বক্তব্য দিচ্ছেন, …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *